হোয়াটসঅ্যাপে যে ধরনের জালিয়াতি হয়

প্রকাশ: 26 November, 2020 3:18 : PM

জনপ্রিয় মেসেজিং সার্ভিস হোয়াটসঅ্যাপ। ভারতে কয়েক কোটি গ্রাহক নিয়মিত এই অ্যাপ ব্যবহার করেন। বিপুল পরিমাণ গ্রাহকের জন্যই প্রতারকদের নিশানায় থাকে হোয়াটসঅ্যাপ। বিভিন্ন সময়ে আলাদা আলাদা উপায়ে প্রতারণার জাল ছড়ানো হয়। সম্প্রতি ওপিটির মাধ্যমে একটি হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রতারণার খবর সামনে এসেছে। নিজেকে ও পরিবারের সদস্যদের প্রতারকদের হাত থেকে সুরক্ষিত রাখতে এই ধরনের ফাঁদ থেকে দূরে থাকুন। দেখে নিন কীভাবে হোয়াটসঅ্যাপে প্রতারণা চলছে?

নতুন এই উপায়ে আপনার পরিচিত কোন বন্ধুর নাম করে আপনাকে মেসেজ করবে প্রতারকরা। অনেক সময় সেই বন্ধুর নম্বর ব্যবহার করেও মেসেজ করা হবে। মেসেজে সেই বন্ধু বিপদে পড়েছে বলে দাবি করা হবে।

এর পরেই সাহায্যের জন্য আবেদন করে মেসেজ পাঠানো হবে। সেই মেসেজে একটি ওটিপি জানতে চাওয়া হবে।

এর পরে প্রতারকরা জানাবেন যে আপনার ফোনে ভুল করে ওটিপি চলে গিয়েছে। সেই ওটিপি ফরওয়ার্ড করে অনুরোধ জানানো হবে। এই ওটিপির মাধ্যমে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের দখল নেবে প্রতারকরা।

ওটিপি ব্যবহার করে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে লগ ইন করে আপনার সব হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ পড়তে পারবে তারা।

এর পরেই আপনার বন্ধুদের টাকা চেয়ে মেসেজ পাঠানো শুরু হবে। আপনার নাম করে সেই টাকা চাওয়া হবে।

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন এনেবেল করে রাখুন। টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন অন থাকলে শুধুমাত্র ওটিপি ব্যবহার করে আপনার ফোনে লগ ইন করা যাবে না। সঙ্গে লাগবে একটি ৬ ডিজিট পিন। এছাড়াও সুরক্ষিত থাকতে কোনো ওটিপি চেনা অথবা অচেনা কারও সঙ্গে শেয়ার করবেন না।