বিসিএস প্রিলি অনুষ্ঠিত, সুরক্ষা নিয়ে বরিশালে পরীক্ষার্থীদের ক্ষোভ

প্রকাশ: 19 March, 2021 6:42 : PM

বরিশালে ১৪ টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়েছে ৪১ তম বিসিএস এর প্রিলিমিনারি (এমসিকিউ) পরীক্ষা। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই আজ শুক্রবার (১৯ মার্চ) সকাল ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত পরীক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন হয়।তবে পরীক্ষাকালে স্বাস্থ্য বিধি প্রতিপালনের বালাই না থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পরীক্ষার্থীরা। আর স্বাস্থ্য ঝুঁকি আগ্রাহ্য করে এভাবে পরীক্ষা নেয়া সঠিক সিদ্ধান্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক সমাজের প্রতিনিধিরা।এর আগে উক্ত পরীক্ষা স্থগিতের দাবিতে মানববন্ধন, সংবাদ সম্মেলন ও আদালতে রিট করেন রাজধানী ঢাকার প্রার্থীরা।

স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় পরীক্ষার পূর্বে ১২ দফা নির্দেশনা জারি করে সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি)। এর মধ্যে কেন্দ্রের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা এবং জনসমাগম রোধ ছিল অন্যতম। কিন্তু বরিশালের বিভিন্ন কেন্দ্রে এসব নির্দেশনা বাস্তবায়ন হয় নি বলে জানান পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী একাধিক প্রার্থী। আর পরীক্ষা পেছানোর দাবি থাকা সত্বেও কেন করোনা সংক্রমণের প্রকোপকালীন সময়েই এতবড় পরীক্ষা নেয়া হলো সেই প্রশ্নও উঠেছে সচেতন মহলে।

বরিশাল মডেল স্কুল এন্ড কলেজে পরীক্ষা দিয়েছেন বরগুনা জেলা থেকে আগত রফিকুল ইসলাম। তিনি জানান, পরীক্ষা কেন্দ্রে জনসমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো। কেন্দ্রের বাইরে অভিভাবক এবং দর্শনার্থীদের ভিড় নিয়ন্ত্রণে কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় নি।বিপিএসসি থেকে নির্দেশনা থাকলেও সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার কোন ব্যবস্থা রাখে নি কর্তৃপক্ষ। আর উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সানজানা উর্মি বলেন, ‘ মুখে মাস্ক আর কেন্দ্রে ঢোকার সময় শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ ছাড়া আর কোন স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণের বালাই ছিল না’৷

আলেকান্দা সরকারি কলেজে পরীক্ষা দেন মোঃ শফিকুর রহমান। তিনি বলেন, ‘ দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার কারণে শ্রেণীকক্ষ নোংরা ও বেঞ্চে ধুলোবালির আস্তরণ ছিল। এগুলো পরিষ্কার না করেই পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। এতে করে স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিঘ্ন ঘটেছে ‘। আর শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল কলেজে পরীক্ষা দেয়া ফুয়াদ হোসেন জানান,পরীক্ষা শেষে কেন্দ্র থেকে বেড়িয়ে পরীক্ষার্থী, অভিভাবক এবং দর্শনার্থীদের ভিড়ের মধ্যে পড়তে হয়েছে তাকে।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এই পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত সঠিক হয় নি বলে মনে করেন বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) নেত্রী ও চিকিৎসক ডা: মনীষা চক্রবর্তী। তিনি বলেন,দেশজুড়ে নতুনকরে করোনা সংক্রমণের প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে পরীক্ষার নামে দেশব্যাপী লাখ লাখ মানুষের সমাগম সরকারের দায়িত্বহীন আচরণের পরিচয় বহন করে ‘।

তিনি আরো বলেন, পরীক্ষার তারিখ পুনঃনির্ধারণের দাবিতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছিলো প্রার্থীরা। তাদের দাবি আগ্রাহ্য করে এভাবে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে পিএসসি কার স্বার্থ রক্ষা করলো সেটাই এখন প্রশ্ন।