চিরতা তো চিরদিনই ভালো

প্রকাশ: 14 August, 2020 11:35 : AM

আগের দিনে ছোটবেলায় কি সব গাছ-পালা ভিজিয়ে পানি খাওয়ানোর জন্য জোর করেনি এমন মা কমই ছিলেন। এসব পানীয়র স্বাদ তো ছিলই না, বরং তিতাও ছিল, কয়েকটা।

এমন একটা ছিল চিরতা, মনে আছে একটু তিতা স্বাদের? মজার ছিল না, তারপরও মায়েরা কেন জোর করে খাওয়াতো?

কারণ মায়েরা সব সময়ই সন্তানের মঙ্গলের চিন্তায় থাকেন, চেষ্টায় থাকেন তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে সুস্থ রাখতে। আর এজন্যই স্বাদের চেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন উপকারিতার দিকে। এই করোনাকালে চিরতা ভেজানো পানি পান করলে আমরা যে উপকারিতা পেয়ে থাকি:

•    চিরতা খেলে যেকোনো কাটা, ছেঁড়া, ক্ষতস্থান দ্রুত শুকায়
•    শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়তে সাহায্য করে
•    ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরল, উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে
•    বাড়তি ওজন কমাতেও পান করা যায় চিরতা ভেজানো পানি
•    হজমশক্তি বাড়ে ও তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে
•    ঠান্ডা-জ্বর কাবু করতেও চিরতা কার্যকর
•    কাশি-হাঁপানি-ও শ্বাসকষ্ট কমাতেও সাহায্য করে চিরতা
•    রক্তশূন্যতা কমায়, চিরতা রক্ত পরিষ্কার রাখে
•    অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট  সমৃ্দ্ধ চিরতায় হৃদরোগে স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে।

আগের দিন রাতে শুকনো চিরতা ৪-৫ গ্রাম পরিমাণ এক গ্লাস (২৫০ মিলিলিটার) গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরদিন ওটা ছেঁকে নিয়ে পান করতে হবে।
দোকান বা অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন উপকারি হার্ব চিরতা।