চীনে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করছে না রাশিয়া

প্রকাশ: 29 July, 2020 9:09 : AM

ভূমি থেকে বাতাসে নিক্ষেপকারী অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র এস-৪০০ চীনের কাছে সরবরাহ স্থগিত করেছে রাশিয়া। আবার কবে নাগাদ পুনরায় সরবরাহ চালু হবে সে বিষয়ে কিছুই বলেনি রাশিয়া।

ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ বন্ধের বিষয়টি চীনের জন্য বড় ধাক্কা।

ভারতীয় দৈনিক হিন্দুস্তান টাইমসের এক অনলাইন প্রতিবেদনে চীনা গণমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে চীনের গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে আরও বলেছে, রাশিয়া চায় না যে এর জন্য বেইজিংয়ের কোনও সমস্যা সৃষ্টি হোক। বিভিন্ন কারণে রাশিয়াকে ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের সিদ্ধান্ত স্থগিত করতে হয়েছে। এ ধরনের অস্ত্রের চুক্তি একটি জটিল প্রক্রিয়া। এছাড়া কর্মীদের অস্ত্র ব্যবহারের জন্য প্রশিক্ষণ নিতে হবে। এর জন্য কর্মীদের রাশিয়ায় পাঠানো হয়েছিল। তবে এটি করোনা মহামারির যুগে বেশ বিপজ্জনক।

রাশিয়ার এ ঘোষণার পরে চীন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে মস্কো এ জাতীয় সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে। কারণ এ মুহূর্তে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের ফলে পিপলস লিবারেশন আর্মির মহামারিবিরোধী কর্মকাণ্ড প্রভাবিত করবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রাশিয়া ও চীনের মধ্যে ঘনিষ্ট বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় থাকলেও এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্রটির সরবরাহ বন্ধের আগে মস্কোতে গুপ্তচর পাঠানোর অভিযোগ আনা হয়েছিল চীনের ওপর। রাশিয়ান কর্মকর্তারা তাদের সেন্ট পিটার্সবার্গ আর্কটিক সোশ্যাল সায়েন্সেজ একাডেমির সভাপতি বালেরি মিটকো চীনকে গোপনীয় সামগ্রী হস্তান্তর করার জন্য দোষী বলে চিহ্নিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বলা হয়, এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্রটি এস-৩০০ এর আপডেটেড সংস্করণ। এটি ৪০০ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের ক্ষেপণাস্ত্র। এটি পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমানগুলোকেও ধ্বংস করতে সক্ষম। এ সিস্টেমটি অত্যাধুনিক, যা একবারে ৭২টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করতে পারে। এ ক্ষেপণাস্ত্রটি একযোগে ৩৬টি পর্যন্ত পারমাণবিক ক্ষমতা সম্পন্ন ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করতেও ক্ষমতা রাখে।